ভোটার তালিকা হালনাগাদের কাজ শুরু

অনলাইন ডেস্ক : সারাদেশে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম মঙ্গলবার থেকে শুরু করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

আজ সকাল ১১টায় ময়মনসিংহ টাউন হলের তারেক স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা এ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের (পরিচালক) জনসংযোগ এসএম আসাদুজ্জামান আরজু সাংবাদিকদের জানান, সিইসি সোমবার বিকেলেই চার নির্বাচন কমিশনারকে নিয়ে ময়মনসিংহের পৌঁছেছেন।

কমিশন সূত্র জানায়, কমিশনের মনে করছে এবার ৩৫ লাখ নতুন ভোটার তালিকায় অন্তর্ভূক্ত হবে। ২৫ আগস্টের মধ্যে ভোটার তথ্য সংগ্রহ শেষ হলে ৩ ধাপে শুরু হবে নিবন্ধন কেন্দ্রে কম্পিউটার ডাটা এনন্ট্রি, ছবি তোলা ও আনুষঙ্গিক কাজ। প্রথম ধাপে ১৮৩টি উপজেলায় ২২ দিনে, দ্বিতীয় ধাপে ২১৬ টি উপজেলায় ২৮ দিনে, তৃতীয় ধাপে ১১৮টি উপজেলায় ২১ দিনে, মোট ৫১৭টি উপজেলায় তথ্য সংগ্রহের কাজ সম্পন্ন করা হবে। এটি শেষ হবে ৫ নভেম্বর। ২৫ নভেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত উপজেলা থানা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে ভোটার এলাকা স্থানান্তরের আবেদন গ্রহণ, মৃত ভোটারের নাম কর্তন করা যাবে।

২ জানুয়ারি ভোটার তালিকা হালনাগাদকৃত খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে। এই তালিকার উপর দাবি আপত্তি ও সংশোধনের জন্য আবেদন দাখিলের শেষ তারিখ ১৭ জানুয়ারি। দাবি আপত্তি ও সংশোধন নিষ্পত্তির শেষ তারিখ ২২ জানুয়ারি। দাবি, আপত্তি ও সংশোধনীর জন্য দাখিলকৃত আবেদনের উপর গৃহীত সিদ্ধান্ত সন্নিবেশনের শেষ তারিখ ২৭ জানুয়ারি। চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে ৩১ জানুয়ারি।

ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে এবার কমিশন ৭টি বিশেষ কমিটি গঠন করেছে। রোহিঙ্গা ভোটার ঠেকাতে বিশেষ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং নারী ভোটার বাড়াতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কার্যক্রমে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

ইসি সচিবালয়ের সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে যাদের বয়স ১৮ হবে এবং যেসব নাগরিক যোগ্য হওয়ার পরও বিভিন্ন কারণে ইতোপূর্বে ভোটার হতে পারেননি কেবলমাত্র তাদের ভোটার করা হবে। এসময় মৃত ভোটরদের তথ্যও সংগ্রহ করবে ইসি। এই ধাপে কমিশন ২০০০ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে যাদের জন্ম এমন নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সূত্র জানায়, দেশব্যাপী ২০০৭-২০০৮ সালে ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়নের পর ২০০৯, ২০১২, ২০১৪, ২০১৫ সালে ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করা হয়। চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি সর্বশেষ চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়। এই তালিকা অনুযায়ী দেশে বর্তমানে ১০ কোটি ১৮ লাখ ৪৩ হাজার ৬৬৭ জন ভোটার রয়েছে।

Print This Post