‘বোমা আতঙ্ক’ ইপিজেডে, পরে উদ্ধার হলো পাগলের ব্যবহৃত কাপড়ের বস্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট : ৫ এপ্রিল, ২০২১ সোমবার ১০:৪০ পিএম

সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টা। রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন এক নৌবাহিনীর সদস্য। হঠাৎ তিনি ক্ষেয়াল করলেন একটি বোমাসদৃশ পরিত্যক্ত বস্তা। সাথে সাথেই তিনি খবর দিলেন পুলিশকে। ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশসহ সিএমপির বোম্ব ডিস্পোজাল ইউনিটের সদস্যরা। কিন্তু এরপর দেখা গেল বস্তাটি এখানে বসবাসকারী একটি পাগলের ব্যবহৃত পুরোনো কাপড়চোপড় এবং আবর্জনায় ভর্তি।— এমন ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রামের ইপিজেড থানার বানৌজা ঈসা খান গেইটের সামনে।

সোমবার (৫ এপ্রিল) রাত আটটার দিকে বোমা আছে সন্দেহে নিরাপত্তার স্বার্থে পুরো জায়গাটি ঘিরে ফেলে পুলিশ।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত নেভী সদস্যরা জানান, সন্ধ্যার দিকে আমাদের এক সদস্য রাস্তার পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় ঈসা খান গেইটের পাশের রাস্তার একটি মাজারে বোমাসদৃশ একটি বস্তা দেখতে পান। এরপর তিনি বোম্ব আছে সন্দেহ করে পুলিশকে খবর দেয়। কিন্তু পুলিশ এসে দেখলো শুধুই একটি আবর্জনা ভর্তি বস্তা।

এবিষয়ে ইপিজেড থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) উৎপল বড়ুয়া বলেন, ‘এখানে একটি পাগল বসবাস করে। সেই পাগলই এই বস্তার ভেতরে কাগজ, বোতল এবং কাপড়চোপড় ভর্তি করে রেখেছে। সেই বস্তা দেখেই মূলত বোমা আছে সন্দেহ করে পুলিশকে খবর দেয়া হয়।’

‘এরপর ঘটনাস্থলে সিমএপির বোম্ব ডিস্পোজাল ইউনিট এসে বস্তাটি চেক করে আবর্জনা ভর্তি দেখতে পায়।’— যোগ করেন ওসি।

উল্লেখ্য, এর আগে গত বুধবার (৩১ মার্চ) ইপিজেড এলাকায় ট্রাস্ট ব্যাংকে প্রবেশ করে এক যুবক তাঁর কাছে বোম্ব আছে জানিয়ে ৫০ লাখ টাকা দাবি করেন। কিন্তু পুলিশ গিয়ে পরে তাঁর কাছ থেকে একটি বডিস্প্রে উদ্ধার করে। যেটি দিয়ে দিনি বোমা দিয়ে ব্যাংক উড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়। পরবর্তীতে ওই যুবককে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ।।

রবিউল হোসেন রবি/এমএ/সিএস

Print This Post