একদিনে লাখপতি হওয়ার স্বপ্ন ভেস্তে গেল বাঁশখালীর চেয়ারম্যান পুত্রের!

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট : ২৩ জানুয়ারি, ২০২১ বৃহস্পতিবার ০৪:৩৪ পিএম

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার চাম্বল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চৌধুরীর পুত্র সানাউল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে চট্টগ্রাম নগরীতে গড়ে উঠেছে ‘কিশোর গ্যাং’। সানাউল হক চৌধুরী বাহরাইন প্রবাসীকে কৌশলে সীতাকুণ্ড থেকে চট্টগ্রামের নগরীর আগ্রাবাদে ডেকে এনে জিম্মি করে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে নগরীর ডবলমুরিং থানা পুলিশের কাছে ধরা পড়েন দুইদিন আগে। দেড় ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে অবশেষে অপহৃত ওই প্রবাসীকে উদ্ধার করে ডবলমুরিং থানা পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে নগরীর আগ্রাবাদ সিডিএ এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয় প্রবাসী সাইফুলকে।

আগ্রাবাদ সিডিএ এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবনে ওই প্রবাসীকে কৌশলে ডেকে জিম্মি করে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে গ্যাং লিডার সানাউল হক চৌধুরী প্রকাশ রকিসহ ছয়জনকে আটক করে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় নগদ ৪ হাজার ২০০ টাকা ও একটি মোটরসাইকেল।

আটকৃতরা হলেন— ছানাউল হক চৌধুরী (১৯), সাইফুল করিম (২০), মো. নাবিদ আরিয়ান (১৮), তানজিল মাহি (১৯), আব্দুল্লাহ আলবিদ সাঈম মুসফিক (১৮) ও মো. রাজিব (২৪)

তাদের মধ্যে ছানাউল কিশোর গ্যাং লিডার হিসেবে পরিচিত। এছাড়া সাইফুলের বিরুদ্ধে দুইটি ও আব্দুল্লাহর বিরুদ্ধে একটি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুুলিশ।

এই কিশোর গ্যাং লিডার সানাউল হক চৌধুরীকে বাঁশখালীতে রাকিবুল হক চৌধুরী নামে চিনলেও মামলায় তার নাম উল্লেখ করা হয়েছে সানাউল হক চৌধুরী।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন জানিয়েছেন, ‘সাইফুল নামে এক বাহরাইন প্রবাসীকে কৌশলে সীতাকুণ্ড থেকে আগ্রাবাদ ডেকে এনে জিম্মি করে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। ৯৯৯-এ খবর পেয়ে দেড় ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে ওই প্রবাসীকে উদ্ধার করা হয়।’

অপহরণের সঙ্গে জড়িত ছয়জনকে আটক করার বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি জানান, সাইফুলের বাড়ি চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড এলাকায়। তিনি দীর্ঘদিন বাহরাইনে ছিলেন। তার সাথে ফেসবুকে সম্পর্ক স্থাপন করে সাইফুল করিম নামে এক অপহরণকারী। তাকে প্রথমে কৌশলে আগ্রাবাদ ডেকে আনে। এরপর অপহরণ করে তাকে একটি নির্মাণাধীন ভবনে বেধে রাখে।

‘এসময় তাকে মারধর করে। পরে তার পরিবারের কাছে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তার পরিবার বিষয়টি ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে জানায়। মারধরে প্রবাসী সাইফুল গুরুতর আহত হন। তাকে চিকিৎসার জন্য একটি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’—যোগ করে ওসি।

এমবিইউ/আরএইচ

Print This Post