বাঁশখালীতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, মৃত্যু নিয়ে রহস্য

বাঁশখালী প্রতিনিধি | আপডেট : ২১ জানুয়ারি, ২০২১ বৃহস্পতিবার ১১:০০ পিএম

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে মো. রুবেল (১৬) নামে এক কিশোরের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। তবে কি কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

চাকুরির সুবাদে রুবেল ও তার এক সহকর্মী আস্করিয়া রোডের তমিজ উদ্দীনের মালিকানাধীন ভাড়া বাসায় বসবাস করতো। রুবেল বাঁশখালী পৌরসভার বাহার উল্লাহ পাড়ার মোস্তাফিজুর রহমানের পুত্র।

বাঁশখালী থানা পুলিশের এসআই প্রদীপ চক্রবর্ত্তী কিশোরের লাশ উদ্ধার পূর্বক সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন। এ ঘটনায় বাঁশখালী থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, মো. রুবেল দিনে ও রাতে দুটি চাকুরি করতো। দিনে উপজেলা সদরের সোনালী ব্যাংকের নীচে ওয়ালটন শো রুমে এবং রাতে উপজেলা কেন্দ্রীয় ডাকঘরে মাস্টার রোলে নৈশ-প্রহরী হিসেবে কর্মরত ছিল। ওয়ালটন শো রুমের পক্ষ থেকে রুবেল এবং এক সহকর্মীসহ দুজনকে আস্করিয়া রোডের তমিজ উদ্দীনের মালিকানাধীন ভাড়া বাসা করে দেয়। সেখানে বৃহস্পতিবার দুপুর ১ টার দিকে সিলিং ফ্যানে বাঁধা দড়ির সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে বাঁশখালী হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, রুবেল এবার বাঁশখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী। দিনে উপজেলা সদরের সোনালী ব্যাংকের নীচে ওয়ালটন শো রুমে এবং রাতে উপজেলা ডাকঘরে মাস্টার রোলে নৈশ-প্রহরী হিসেবে কর্মরত ছিল। তবে কি কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।

এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সফিউল কবীর বলেন, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) প্রেরণ করা হয়েছে । তদন্ত রিপোর্ট এলে প্রকৃত তথ্য জানা যাবে।

এদিকে এসএসসি পরীক্ষার্থী রুবেলের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
তার রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় পরিবারেও চলছে শোকের মাতম।

এমবিইউ/আরএইচ

Print This Post