বাকলিয়ায় ছাত্রলীগ-যুবদলের সংঘর্ষে আহত ৪, আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট : ২০ জানুয়ারি, ২০২১ বুধবার ০৭:৫০ পিএম

চট্টগ্রামের বাকলিয়ার বলিরহাট এলাকায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর পক্ষে প্রচারণা চালানোর সময় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা করেছে যুবদলের নেতাকর্মীরা। এতে উভয়পক্ষের ৪ জন আহত হয়েছেন। সংঘর্ষের মধ্যে ফাঁকা গুলিও চালানো হয়েছে—জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতদের পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ছাত্রলীগের আহতরা হলেন—১৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সোহান এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ওয়াজেদ।

অন্যদিকে বিএনপির আহতরা হলেন—ছাত্রদল নেতা ইউনুস এবং নুরুদ্দিন।

আওয়ামী লীগের দাবি, সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর নির্বাচনী প্রচারণা করার সময় বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা অতর্কিত হামলা করে। এতে তাদের দুইজন আহত হন।

অন্যদিকে বিএনপির দাবি, বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনের নির্বাচনী প্রচারণায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হামলা করে ছাত্রদলের দুই নেতাকে আহত করেন।

এদিকে দুই পক্ষের সংঘর্ষের মধ্যে ফাঁকা গুলির শব্দ শুনেছেন বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

১৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক মানিক বলেন, রেজাউল করিমের প্রচারণা চালানোর সময় বিএনপির নেতাকর্মীরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে দুইজনকে আহত করেন। আমরা পাল্টা প্রতিরোধ করেছি।

বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য সচিব মো. ইদ্রিস আলী বলেন, ডা. শাহাদাতের পক্ষে যুবদলের নির্বাচনী পথসভায় আওয়ামী লীগের লোকজন হামলা চালিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে দুইজনকে আহত করেছে। তাদের হাত-পা ভেঙে দিয়েছে। তারা ককটেল ফাটিয়েছে, গুলিও করেছে।

বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রুহুল আমিন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচারণায় বিএনপির কর্মীরা হামলা চালিয়েছে বলে শুনেছি।’

তিনি বলেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনায় জড়িত বাকিদেরও আটক করা হবে। সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটও কাজ করছে।’

আরএইচ/সিএস

Print This Post