পুলিশের সহযোগিতায় বড় দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন জাহাজের শ্রমিক পতেঙ্গায়

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর, ২০২০ রবিবার ১০:৩০ পিএম

চট্টগ্রামের বর্হিনোঙ্গর জাহাজের কেরেংয়ের মালালার পড়ে গুরুতর আহত হন মো. বিল্লাল (৪০) নামে দেশীয় এক কার্গো জাহাজের শ্রমিক। সেখানে দূর্ঘটনার পর তাকে নিয়ে আসা হয় পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের উপকূলে। ওই সময় তাকে হাসপাতালের পাঠানোর জন্য কোনো ধরনের এম্বুলেন্স না পেয়ে করুণ আত্মচিৎকারে তাৎক্ষনিক বদলে যায় সৈকতের মনোমুগ্ধকর দৃশ্য। হঠাৎ বিষয়টি সেখানকার পুলিশের দৃশ্যগোচর হলেও তাৎক্ষনিকভাবে ব্যবস্থা করা হয় এম্বুলেন্স।

শুধু তাই নয়, গুরুতর আহত ব্যক্তিকে ভেঙ্গে যাওয়া কোমরের অংশ সহ পুরো শরীরকে লাঠি ও রশির দিয়ে মোড়িয়ে বেঁধে দেওয়ার ব্যবস্থাও করেন পুলিশ সদস্যরা। পরে সেখান থেকে রোগীকে এম্বুলেন্সের মা্যেমে পৌঁছানো হয় চট্টগ্রাম মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে।

শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) রাতে বর্হিনোঙ্গরে জাহাজ দূর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিকে হাসপাতালে পাঠিয়েছে পতেঙ্গা থানার পুলিশ।

মো. বিল্লাল খুলনা জেলার খালিশপুর থানার দৌলতপুর গ্রামের ওয়াহেদ হাওলাদারের পুত্র। তিনি ইপিজেড থানার নিউমুরিং এলাকায় অস্থায়ীভাবে বসবাস করেন। মো. বিল্লাল এম.বি ছিরিকোট জাহাজের শ্রমিক হিসেবে কর্মরত।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এএসআই) মো. আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, ‘ গতকাল (শুক্রবার) জাহাজের কেরেংয়ের মালামাল পড়ে গুরুতর আহত হয় জাহাজের শ্রমিক বিল্লাল। ওই সময় তার কোমরও ভেঙ্গে যায়। রাতে এম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে আনা হয়। ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে তার চিকিৎসা চলছে।’

ডাক্তারের বরাত দিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘তাকে অপারেশন করা হবে। তার কোমর প্রচুর আঘাত পেয়েছে।’

বিষয়টি নিশ্চিত করে পতেঙ্গা থানার অপারেশন অফিসার (এসআই) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘ গতকাল (শুক্রবার) সন্ধ্যার পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি হিসেবে থানার পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হয় সমুদ্র সৈকতে লোকজনকে মাঝে। ওই কাজ শেষ সেরে থানায় ফেরার পথে হঠাৎ এক ব্যক্তির কান্নার আওয়াজ শুনে সেখানে গিয়ে দেখি বিল্লাল নামে জাহাজের শ্রমিক কাতরাচ্ছেন। সৈকতে এম্বুলেন্স না থাকায় তাৎক্ষনিক কয়েক জায়গা কল করে ব্যবস্থা করা হয় এম্বলেন্সের। এরপর এম্বুলেন্স আসলে তাকে দ্রুতগতিতে পাঠানো হয়েছে চমেক হাসপাতালে। আমার সাথে থানার আরও কয়েক পুলিশের সদস্য ছিল। সবাই মিলে লোকটাকে সহযোগিতা করা চেষ্টা করেছি মাত্র।’

সিএস

Print This Post