নারকেল গাছে চড়ে ভাষণ দিলেন মন্ত্রী

সিএস ডেস্ক | আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ রবিবার ০২:৩০ পিএম

দেশে কোনো সংকট চললে জনগণকে সে বার্তা দিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সাধারণত সংবাদ সম্মেলন করে। সংকটের গুরুত্ব অনুধাবন করে সরকারের শীর্ষ ব্যক্তি কখনো কখনো জাতির উদ্দেশে ভাষণও দেন। তবে শ্রীলঙ্কার এক মন্ত্রী যা করেছেন, তা সম্ভবত কেউই করার চিন্তা করবেন না। তিনি রীতিমতো নারকেলগাছে চড়ে দেশবাসীকে নারকেল–সংকটের বার্তা দিয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার।

ভারত মহাসাগরে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কার মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রায় ২ শতাংশ আসে নারকেল চাষ থেকে। তবে এবার স্থানীয় শিল্পে চাহিদা এবং দেশজুড়ে নারকেল খাওয়ার ও নারকেলজাত পণ্যের ব্যবহার ব্যাপক বেড়ে যাওয়ায় সংকটে পড়েছে দেশটি। সরকারি তথ্যমতে, এ বছর শ্রীলঙ্কায় মোট চাহিদার তুলনায় নারকেলের সরবরাহ পাওয়া যাবে ৭০ কোটি কম। ঠিক এ বার্তা দিতেই এবং নারকেলচাষিদের আরও বেশি নারকেল উৎপাদনে উৎসাহিত করতে শ্রীলঙ্কার ওয়ারাকাপোলা এলাকায় গাছে চড়েছিলেন দেশটির নারকেল, ফিশটেইল পাম, তাল ও রাবার চাষ এবং সংশ্লিষ্ট শিল্পপণ্য উৎপাদন ও রপ্তানি বৈচিত্র্যকরণ–বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অরুন্দিকা ফার্নান্দো।

শ্রীলঙ্কার সংবাদমাধ্যম নিউজ ফার্স্ট প্রতিমন্ত্রীর গাছে চড়ার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে। এতে দেখা যায়, শুক্রবার অরুন্দিকা ফার্নান্দোকে নারকেলগাছে চড়তে সহযোগিতা করতে গিয়ে বেশ কসরত করতে হয় কর্মী–সমর্থকদের। তিনি অবশ্য গাছ বেয়ে ওপরে উঠে যাননি। একটি সহায়ক যন্ত্রের মাধ্যমে তিনি নারকেলগাছে চড়েছেন। এরপর একটি নারকেল হাতে উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছেন। ভাষণ শেষে গাছ থেকে নামার সময়ও বেশ গলদঘর্ম হতে হয় এই মন্ত্রীকে। একেবারে শেষ পর্যায়ে দুই কর্মী অরুন্দিকা ফার্নান্দোকে পাঁজাকোলা করে নামিয়ে আনেন গাছে চড়ার সহায়ক যন্ত্র থেকে।

প্রতিমন্ত্রী অরুন্দিকা ফার্নান্দো তাঁর ভাষণে দেশের নারকেল–সংকটের কথা জানিয়ে সবার উদ্দেশে বলেন, ‘প্রতিটি অনাবাদি জমিতে নারকেল চাষ করা হবে বলে আমরা প্রত্যাশা করছি। একই সঙ্গে স্থানীয় শিল্পে জোগান বাড়াতেও উদ্যোগ নিতে হবে। এর মাধ্যমেই আমরা বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে পারব।’

সরবরাহ ঘাটতির সুযোগে শ্রীলঙ্কায় নারকেল ও নারকেলজাত পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। সংকট সমাধানে প্রতিমন্ত্রী একটি আপাত সমাধানের কথাও উল্লেখ করেন এ সময়। তিনি বলেন, সরবরাহ ঘাটতি থাকার পরও সরকার নারকেলের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Print This Post