তিন ক্যাম্পে ত্রাণ দেবেন খালেদা জিয়া

কক্সবাজার : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালীর তিনটি ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করবেন। সোমবার বেলা ১১টার দিকে কক্সবাজার সার্কিট হাউস থেকে উখিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন তিনি।

কক্সবাজার জেলা বিএনপি সভাপতি শাজাহান চৌধুরী জানান, পালংখালীর ময়নারঘোনা, হাকিমপাড়া ও বালুখালী ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের দেখতে যাবেন দলীয় চেয়ারপারসন। সেখানে রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করবেন, তাদের খোঁজ-খবর নেবেন। এছাড়া রোহিঙ্গাদের সহায়তায় থাকা বিএনপির পেশাজীবী চিকিৎসকদের সংগঠন ড্যাবের ক্যাম্পও পরিদর্শন করবেন খালেদা জিয়া।

উখিয়াতে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে দলের কয়েকজন শীর্ষ নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে থাকবেন। বিশৃঙ্খলা এড়াতে স্থানীয় নেতাকর্মীদের ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে রাখা হচ্ছে না।

বিএনপি সূত্র জানিয়েছে, দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম, স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, জেলা বিএনপি সভাপতি শাজাহান চৌধুরী, দলের মৎস বিষয়ক সম্পাদক লুৎফুর রহমান কাজল ত্রাণ বিতরণের সময় নেত্রীর সঙ্গে থাকবেন। এছাড়া খালেদা জিয়ার সিকিউরিটি ফোর্সের সদস্যরাও তার সঙ্গে থাকবেন।

সূত্র জানায়, বিতরণের জন্য ত্রাণসামগ্রী আগেই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে কিছু ত্রাণসামগ্রী খালেদা জিয়া রোহিঙ্গাদের হাতে তুলে দেবেন। বাকি ত্রাণসামগ্রী সেনাবাহিনীর মাধ্যমে সরকারিভাবে বিতরণ করা হবে।

ত্রাণ বিতরণ শেষে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেবে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর। রাতে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে অবস্থান করবেন বিএনপি চেয়ারপারসন। মঙ্গলবার সকালে সেখান থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন।

এর আগে রোববার (২৯ অক্টোবর) বেলা ১২টা ১০ মিনিটে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউস থেকে রওনা দিয়ে রাত ৮টার দিকে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর কক্সবাজার পৌঁছে।

মিয়ানমারে নির্যাতনের জেরে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তা দিতে শনিবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে ঢাকার গুলশান কার্যালয় থেকে রওনা হন খালেদা। বিকেলে ৫টা ১০ মিনিটে ফেনী সার্কিট হাউজে কিছুক্ষণের যাত্রা বিরতি নেন। পরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে রাতযাপন

Print This Post