পটিয়ায় পিতার মৃত্যুর এক মাস না পেরোতেই ছেলের হাতে মা খুন

 

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট : ১৬ আগস্ট, ২০২২ সোমবার : ৪.৩০ পিএম

চট্টগ্রামের পটিয়ায় পিতার মৃত্যুর মাস না পেরোতেই সম্পত্তির ভাগ নিয়ে মায়ের সাথে কথা কাটাকাটির জেরে ছেলে মাইনুদ্দীন মো. মাঈনুর গুলিতে মা হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। নিহত জেসমিন আক্তার (৫০) প্রয়াত শামসুল আলম মাষ্টারের স্ত্রী।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুর আড়ায় টার দিকে পটিয়া পৌরসভার  ৫নম্বর ওয়ার্ডস্থ ঈদুল মল্ল পাড়া এলাকার সাবেক জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান সদ্য প্র‍য়াত শামশুল আলম মাষ্টারের ঘরে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই ঘাতক ছেলে পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘর তল্লাশী করে ১০ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে।

এ ঘটনার পর তার মেয়ে নিপা তাকে উদ্ধার করে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। মেডিকেলে নিয়ে যাওয়ার পথেই তিনি মারা যান।

প্রতিবেশী শেলি আক্তার জানান, তাদের সাথে কোন ঝগড়াঝাটি হওয়ার আওয়াজ আমি শুনিনি তখন আমি পুকুরে ছিলাম। খুন হওয়া জেসমিন আক্তারের মেয়ে নিপা সহ স্থানীয়রা যখন দৌড়ে আসে আমি ও ঐখানে গিয়ে দেখি খুন হয়েছে আমার চাচি সম্পর্কের জেসমিন আক্তার।

স্থানীয় এক লোক নাম প্রকাশ না করা শর্তে জানান, সদ্য প্র‍য়াত শামসুল আলম মাষ্টারের প্রায় নগদ আড়াই কোটি টাকা ছিল যেটা নিয়ে কয়েকদিন ধরে ঘাতক ছেলে মাঈনুর সাথে তার মা জেসমিন আক্তারের বাকবিতন্ডা হয়ে আসছিল। হইতোবা টাকার লোভে পড়ে তার মাকে সে গুলি করে হত্যা করে।

এ বিষয়ে পটিয়া থানার ওসি তদন্ত রাশেদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে জানান, ঘটনার খবর পেরে আমরা ঘটনাস্থল আসি। ঘাতক ছেলেকে পাওয়া যায়নি। ঘর তল্লাশী করে ১০ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করি। ঘাতক ছেলেকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সিটিজি সান/এমবিইউ

Print This Post