খুন করে ছদ্মবেশে জুতার ফ্যাক্টরিতে নেয় চাকরি, তবুও ধরা

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট : ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ বুধবার ০৭:০০ পিএম

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে খুন করে ছদ্মবেশে জুতার ফ্যাক্টরিতে সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি নিলেও র‍্যাবের হাতে ধরা পড়েছে কুরবান আলী সোহেল (২৩) হত্যা মামলার খুনি মো. জসিম (৩৫)।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে সীতাকুণ্ড থানার কোট্টবাজার এলাকার একটি জুতার ফ্যাক্টরীতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার।

গ্রেফতার মো. জসিম সীতাকুণ্ড থানার পশ্চিম মুরাদপুর গ্রামের আব্দুল রহিমের পুত্র। সে সীতাকুণ্ডে কুরবান আলী হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত একজন পলাতক আসামি।তার বিরুদ্ধে সীতাকুণ্ড থানায় আরও দুইটি মামলা রয়েছে।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, সীতাকুন্ড থানার ৪ নম্বর মুরাদপুর ইউনিয়ন এলাকায় চাঞ্চল্যকর কুরবান আলী সোহেল (২৩) হত্যার ঘটনায় তার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে র‍্যাব অভিযান চালিয়ে জসিমকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

গ্রেফতার এড়াতে সে সিকিউরিটি গার্ডের ছদ্মবেশে সীতাকুণ্ডের একটি জুতার ফ্যাক্টরিতে কাজ শুরু করে এবং সে ফ্যাক্টরির পাশেই বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে।

এর আগে গত ১৬ জুন র‍্যাবের অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামিসহ সোহেল হত্যা মামলার দুই খুনিকে গ্রেফতার করে।

উল্লেখ্য, গত ১৮ মে রাত নয়টায় সাইকেলযোগে সীতাকুণ্ড বাজারে যাওয়ার সময় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুরাদপুর পেশকারপাড়ায় সোহেলকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছিল। নিহত সোহেল সীতাকুণ্ড উপজেলার ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিল বলেও জানা গেছে।

আরএইচ/সিএস

Print This Post