টানা বৃষ্টিতে পাহাড়ধস, মাটি চাপায় প্রাণ গেল একই পরিবারের ৫ জন টেকনাফে

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট : ২৮ জুলাই, ২০২১ বুধবার ০২:৩০ পিএম

কক্সবাজার জেলার টেকনাফে পাহাড়ধসে মাটি চাপা পড়ে একই পরিবারের পাঁচজন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) রাত পৌনে ২টার দিকে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের বিলিজারপাড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এর আগে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরে পাহাড়ধসে মারা গিয়েছিলেন পাঁচজন।

এ ঘটনায় মাটির নিচে চাপা পড়ে যায় ওই এলাকার সৈয়দ আলমের পাঁচ সন্তান। সেখান থেকে প্রথমে দুই জন ও পরে তিন জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা একই গ্রামের ছৈয়দ আলমের ৩ ছেলে ও ২ মেয়ে। তারা হলেন, আব্দুল শুক্কুর (২০), মো. জুবাইর (১০), জিয়া উদ্দিন (৭), কহিনুর আক্তার (১২) ও জয়নুফা আক্তার (১০)। আহতরা হলেন ছৈয়দ আলম ও তার স্ত্রী রেহেনা এবং প্রতিবেশী হাসিনা বেগম।

বিষয়টি নিশ্চিত করে হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী বলেন, পাহাড় ধসের ঘটনায় ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বিলিজার পাড়ার সৈয়দ আলমের তিন ছেলে ও দুই মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বাড়ির পাশের পাহাড় ধসে পড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমানও ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, মধ্যরাতে টেকনাফের হ্নীলার ভিলিজারপাড়ায় সৈয়দ আলম নামের এক ব্যক্তির বাড়িতে পাহাড়ধসে ওই পরিবারের ৩ ছেলে ও দুই মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। টেকনাফ থানার পুলিশ সদস্যরা এখনো ঘটনাস্থলে রয়েছে।

এদিকে ভারী বৃষ্টির কারণে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঝুকিপূর্ণ বসতিগুলো সরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু করেছে।

সিএস

Print This Post