সমুদ্রপথে ইতালি যাওয়া হলো না বাংলাদেশসহ চার দেশের ৪৩ জন অভিবাসীর!

ডেস্ক নিউজ | আপডেট : ৩ জুলাই, ২০২১ শনিবার ০৯:৩০ পিএম

লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়ার সমুদ্রপথে বাংলাদেশ, মিসরসহ চারটি দেশের অন্তত ৪৩ জন অভিবাসী ও শরণার্থী ভূমধ্যসাগরে ডুবে মারা গেছেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছে তিউনিসিয়ার রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। উপকূলে একটি বিধ্বস্ত নৌকা থেকে অন্য ৮৪ জনকে উদ্ধার করেছে তিউনিসিয়ার কোস্টগার্ড।

শনিবার (৩ জুলাই) তিউনিসিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ জেকরির বরাত দিয়ে দেশটির বার্তা সংস্থা ট্যাপ সন্ধ্যায় এ তথ্য জানিয়েছে।

তিউনিসিয়া রেড ক্রিসেন্টের কর্মকর্তা মঙ্গি স্লিমের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ৮৪ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও ৪৩ জন ভূমধ্যসাগরে ডুবে গেছেন। উদ্ধার হওয়া ৮৪ জনের মধ্যে বাংলাদেশ, সুদান, মিসর, ইরিত্রিয়া ও চাদের নাগরিক রয়েছেন।

তাঁরা জানিয়েছেন, গত ২৮ ও ২৯ জুন তাঁরা লিবিয়ার জুয়ারা উপকূল দিয়ে অবৈধভাবে ইতালি পৌঁছাতে ভূমধ্যসাগরে যাত্রা করেছিলেন। উদ্ধার ব্যক্তিদের জারজিসে নিয়ে কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।
বিজ্ঞাপন

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, এ বছরের প্রথম ছয় মাসে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে বিভিন্ন দেশের ৩৫ হাজারের বেশি মানুষ ইতালি, গ্রিস, স্পেন, সাইপ্রাস ও মাল্টায় পৌঁছেছে। ইতালি যেতে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপগামী অভিবাসীদের ৬০ শতাংশের বেশি লিবিয়া থেকে যাত্রা করেন।

সংস্থাটি আরও জানায়, চলতি বছর ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে ৮২৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে এপ্রিলে তিউনিসিয়ার উপকূলে এক নৌকাডুবিতে ৪০ জনের বেশি মানুষ ভূমধ্যসাগরে ডুবে মারা যান। আর মার্চে মারা যান ৩৯ জন।

সিটিজিসান ডটকম/সিএস