বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রীর ছবি সংযুক্ত ফের চট্টগ্রামে অবৈধ বিলবোর্ড!

maxresdefault

চট্টগ্রা্ম :: ক্লিন ও গ্রীণ সিটি রুপান্তর করেত চসিক মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন বদ্ধপরিকর। নগরীর মধ্যে আর থাকবে না কোন ধরনের বিল বোর্ড ঘোষনা ছিল মেয়রের। মাত্র ছয় মাস আগে সব ধরনের বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়েছিল বন্দর নগরী চট্টগ্রামে।

এদিকে গতকাল থেকে দেখা গেল আবারো নগরীতে বিলবোর্ড উঠতে শুরু করেছে।

ctgbio_200_200

এক্ষেত্রে নগরীর ফ্লাইওভারগুলোকে বিলবোর্ড ব্যবসায়ীরা ব্যবহার করেছেন বিলবোর্ড স্থাপনে। যাতে পণ্যের বিজ্ঞাপনের পাশাপাশি ব্যবহার করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি। নতুন করে বিলবোর্ড স্থাপনের কোনো অনুমতি দেয়া হয়নি জানিয়ে মেয়র বলছেন জাতির জনক ও তার পরিবারে সদস্যদের ছবি ব্যবহারেও রয়েছে দলীয় নিষেধাজ্ঞা।

একপাশে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও অন্যপাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি। মাঝখানে পণ্যের বিজ্ঞাপন।

এচিত্র বন্দর নগরীর বহদ্দারহাট ফ্লাইওভারের। যেখানে লাগানো হয়েছে এসব বিলবোর্ড। বঙ্গবন্ধু আর প্রধানমন্ত্রীর ছবি ব্যবহারের মাধ্যমে এমন অভিনব কায়দায় নগরীতে বিলবোর্ড বসানো শুরু হয়েছে। শুধু এখানে নয়, বিলবোর্ড লাগানো হয়েছে নগরীর অন্য ফ্লাইওভারেও। যদিও নির্মাণের পর থেকে এসব ফ্লাইওভার দেখভাল করছে সিডিএ।

অথচ হাজার হাজার বিলবোর্ডে ঢেকে যাওয়া চট্টগ্রাম শহরকে মাত্র ছয় মাস আগে বিলবোর্ড মুক্ত করেছিল, সিটি কর্পোরেশন। যাতে নগরী ফিরে পেয়েছিল প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। নগরবিদদের আশংকা, নতুন করে বিলবোর্ড স্থাপন নগরীকে আগের অবস্থানে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে। এক্ষেত্রে ফ্লাইওভারের সৌন্দর্য বর্ধনে বিকল্প ব্যবস্থার ওপর জোর দিয়েছেন তারা।

সিটি মেয়র জানান, নগরীতে নতুন করে বিলবোর্ড স্থাপনের অনুমতি দেয়া হয়নি। পাশাপাশি যততত্র বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের ছবি ব্যবহারের ক্ষেত্রে দলীয়ভাবে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

নগরীর ফ্লাইওভার থেকে সব বিলবোর্ড সরিয়ে নিতে সিডিএকে চিঠি দেয়া হয়েছে বলে জানান মেয়র। তবে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি, সিডিএ কর্মকর্তারা।

সিটিজিসান.কম/শিশির