পতেঙ্গায় পূনর্বাসিত ভূমির রেজিষ্ট্রেশন ও বরাদ্দপত্রের দাবিতে গণসমাবেশ

3

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের অধিকৃত জমির মালিকদের বরাদ্দকৃত জমির রেজিস্ট্রেশন ও বরাদ্দপত্রের দাবিতে গণসমাবেশের আয়োজন করেছে স্থানীয়রা।

আজ শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) বিকাল সাড়ে চারটার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গা থানার বিজয়নগর এলাকায় এক গণসমাবেশের আয়োজন করা হয়।

2

সমাবেশে বক্তারা বলেন, বেসামারিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ দীর্ঘ ২০ বছরেও বিনামূল্যে ভূমির রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার কথা থাকলেও টাকা ছাড়া জমির রেজিস্ট্রেশন ও বরাদ্দপত্র দিচ্ছে না। বারংবার কালক্ষেপন করা হচ্ছে। স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী লোক রেজিষ্ট্রেশন পাইয়ে দেয়ার নাম করে বিপুল পরিমাণ টাকা ইতিমধ্যে হাতিয়ে নিয়েছে স্থানীয়দের কাছ থেকে। এর মধ্যে সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের কিছু অসাধু লোকও জড়িত আছে বলে স্থানীয়রা দাবি করেন।

মাস্টার ইউনুসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত গণসমাবেশে বক্তারা আরো বলেন, অবিলম্বে স্ব স্ব ব্যক্তির নামে ভূমির রেজিষ্ট্রেশন ও বরাদ্দপত্র দিয়ে দিন। অন্যথায় আমরা পরবর্তীতে আরো বৃহত্তর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

গণসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট জানে আলম, বিজয় নগর পরিবেশ সংরক্ষণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাহার উদ্দিন, তরুণ সমাজ সেবক মো. ফজল করিম ও মোহাম্মদ ফোরকান সহ স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৭ সালে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণের জন্য বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ পতেঙ্গার পোড়াপাড়া, মিয়াজিপাড়া, ডুরিয়াপাড়া (আংশিক), চরবস্তি (আংশিক) এলাকায় প্রায় ৫০০ পরিবারকে উচ্ছেদ করে ক্ষতিপুরণসহ বিজয় নগর এলাকায় পুর্নবাসন করে। ২০ বছর পেরিয়ে গেলেও নানান তালবাহানায় আজো শতাধিক পরিবার রেজিষ্টেশন ও বরাদ্দপত্র থেকে বঞ্চিত স্থানীয়রা।