চট্টগ্রামে নিশানের বিচার দাবিতে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন

ctg
চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানার পশ্চিম ফিরোজশাহ এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল মাওলার বাড়িতে হামলার বিচার দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের প্রতিবাদে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছে প্রতিপক্ষ।

সোমবার সকালে নগরীর জামালখান প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এসব কথা জানান মো. মারুফ হোসেন।

তাদের দাবি, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল মাওলা তাদের অহংকার। কিন্তু তাঁরই ছেলে গোলাম রসুল নিশান সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ী।

চট্টগ্রামের ছাত্রলীগের একজন সক্রীয় কর্মী দাবি করে মারুফ বলেন, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল মাওলার বাড়িতে যে হামলা, ভাংচুর এবং হত্যার অভিযোগ করেছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

কেননা, চলতি বছরের ১৬ আগস্ট গোলাম রসুল নিশানের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ জন সন্ত্রাসী অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে নগরীর আকবরশাহ থানার মালিপাড়া এলাকায় আমার বাবার (আবুল বশর) মালিকানাধীন আল্লাহর দান স্টোরে গিয়ে ৫ লাখ টাকা
চাঁদা দাবি করে।

দাবি অনুযায়ী আমার বাবা ও বড় ভাই (ফয়সাল আলম) তাদের চাঁদা দিতে স্বীকার করলে করলে নিশানের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা আমাদের দোকানে ভাংচুর চালায়।

‘পরবর্তীতে ১৯ আগস্ট রাত সাড়ে ৮টায় পশ্চিম ফিরোজশাহ ঈদগাঁও মাঠের সামনে নিশানের নেতৃত্বে অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে তার সহযোগিরা আমাকে চারদিকে ঘিরে ফেলে। অল্প সময়ের মধ্যে আমার বাবার কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা চাঁদা এনে দিতে বলে। আমি
অপরাগতা প্রকাশ করলে নিশানের হাতে থাকা ধারালো কিরিচ দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে লোহার রড় দিয়ে হাতে ও পিঠে আঘাত করে আমার গুরুতর জখম করে।

পরবর্তীতে পরিবারের সদস্য ও মনোয়ার উল আলম চৌধুরী নোবেল এসে আমাকে রক্তাক্ত অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করান। দুই দিন চিকিৎসাসেবা নেওয়ার পর ২২ আগস্ট আমার বড় ভাই মো. ফয়সাল আলম বাদী হয়ে নিশান ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে আকবর শাহ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।’

মারুফ আরও বলেন, আকবর শাহ থানার মামলা নম্বর ৩৯। নিশান মামলার খবর পেয়ে ২২ আগস্ট রাতেই ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে নিজের বাড়ির জানালার কাঁচ নিজে ভেঙে তার ভাই গোলাম রব্বানী নবীনকে দিয়ে মনোয়ার উলন আলম নোবেলসহ যুবলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীদের আসামী করে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। যা সম্পূর্ণ মিথ্যে ও বানোয়াট। নিশান একজন সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী। সে আমাকে প্রতিনিয়ত মামলা প্রত্যাহারের জন্য নানাভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

অবিলম্বে নিশানের দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারেরও দাবি জানান মারুফ। এর আগে (২৬ আগস্ট) বীরোত্তম খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল মাওলার বাড়িতে হামলা, লুটপাট, ভাংচুরসহ তাঁরই ছোট ছেলেকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেন নাজমা মাওলা। যিনি বীরোত্তম খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল মাওলার স্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে মনোয়ারুল আলম চৌধুরী নোবেলসহ সন্ত্রাসী চক্রের হুমকি এবং মামলা-হামলা থেকে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে রক্ষায় পুলিশ কমিশনার, পুলিশের মহাপরিদর্শক ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।