শিশু পাচারকারী মধ্যপ্রাচ্যের ৮ শেখসহ গ্রেপ্তার ২০

image-49647

অনলাইন ডেস্ক :
এক আন্তর্জাতিক শিশু পাচার চক্রের হদিস মিলল ভারতের হায়দ্রবাদে। এই চক্রের সঙ্গে যুক্ত থাকায় ২০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার মধ্যে পাঁচজন ওমানি শেখ, তিনজন কাতারি শেখ এবং তিনজন কাজী রয়েছে। চক্রের হতা মুম্বাইয়ের প্রধান কাজী ফারিদ আহমেদ খান। নকল নিকাহনামা তৈরি করে শেখদের সঙ্গে নাবালিকাদের মিথ্যে বিয়ে দিয়ে আরব দুনিয়ায় তাদের পাচার করে দিত এই চক্র। হায়দ্রবাদে এদের ঘাঁটি থেকে ১২ নাবালিকাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সম্প্রতি হায়দ্রবাদে ১৬ বছরের এক কিশোরীর সঙ্গে ৫০ বছরের এক শেখের বিয়ের কথা জানতে পারে পুলিশ। সে বিষয়ে তদন্তে নেমেই এই বিশাল চক্রের হদিস মেলে। মঙ্গলবার রাতে এক নাবালিকাকে বিয়ে করার সময় এক ওমানি শেখকে হাতেনাতে ধরেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে পাঁচজন স্থানীয় মিডলম্যান এবং চার হোটেল মালিককে। এদের জিজ্ঞাসাবাদ করেই মুম্বাইয়ে ছড়ানো এই চক্রের ডালপালা সম্পর্কে জানতে পারেন তদন্তকারীরা।

মুম্বাইয়ের কাজী ফারিদ আহমেদ খান নকল নিকাহনামা তৈরি করে দিতে ৭০ হাজার টাকা করে নিত। ৬৩ বছরের এই কাজীই চক্রে মাথা বলে সন্দেহ পুলিশের। মুম্বাইয়ের ভেন্ডি বাজারে এই কাজীর অফিস। এভাবে বহু নাবালিকাকে মিথ্যে বিয়ের নামে মধ্যপ্রাচ্যে পাচার করে দিয়েছে সে। মধ্যপ্রাচ্যের ভিসা পেতে নকল কাগজপত্রও বানিয়ে দিত ওই কাজী। তার বাড়ির লোকেরা অবশ্য সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে। সূত্র: এই সময়