যে রাস্তায় থুথু ফেললে যেতে হয় কারাগারে!

অনলাইন ডেস্ক : পৃথিবীতে এমনও এক জায়গা আছে যেখানে রাস্তার পাশে থুথু ফেলা আইনত দণ্ডনীয়। এই স্থানটির নাম “অটোয়া” । এটি কানাডার রাজধানী। জনসংখ্যার বিচারে অটোয়া দেশের চতুর্থ বৃহত্তম মহানগর আবার ওন্টারিও রাজ্যের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর ।

মেট্রোপলিটান এলাকাসহ এর লোকসংখ্যা প্রায় ১২ লক্ষ । ১৮২৬ সালে শহরটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। ১৮৫৮ সালে এটি কানাডার রাজধানীতে পরিণত হয়।অটোয়াকে দেখলেই রহস্যের গন্ধ পাওয়া যায়। এটি সৌন্দর্য ও বিষণ্নতায় ভরপুর।

এটি চারদিকে শীতের কুয়াশার ভেতরে রাখা শীতল হাতের মত নিস্তব্ধতা আর অভিযোগহীনতায় ঘেরা। মন্ট্রিয়লের হই-হুল্লোড় আর ফেস্টিভ্যালের তুলনায় অটোয়া যেন সদ্য বয়সন্ধিতে আসা কোনো কিশোর-কিশোরীর মত অন্তর্মুখী।একটি দেশের রাজধানী শহর বলতে যে অগণিত মানুষের সমাবেশ, পিঁপড়ে আর উঁইঢিবির মতো যত্রতত্র গড়ে ওঠা অট্টালিকা

আর যানজটের আশঙ্কা থাকে- অটোয়ায় সেইসব নেই। এখানে আছে বিকালেবেলা হঠাৎ মনে করে আকাশের দিকে তাকিয়ে অনেকক্ষণ দৃষ্টি না ফেরানোর আনন্দ। আছে মায়ের হাতের রান্নার নিপুণতার মতো সুপরিকল্পিত নগরায়নের ছোঁয়া, যা দেখে আপনি বার বার মুগদ্ধ হবেন। ইচ্ছে করবে আপনার এই স্বরাজ্যে সারা জীবন কেটে দিতে।মন্ট্রিয়ল থেকে অটোয়া ঘণ্টা আড়াইয়ের পথ। গাড়ি জোরে চালালে হয়তো দুই ঘণ্টার।

তবে অন্টারিও প্রদেশে প্রতি ঘণ্টায় ১২০ কি.মি. এর উপরে গাড়ি চালালে হাইওয়ে পুলিশ জরিমানা করে ৯৫ ডলার, ঘণ্টায় ১৪০ কি.মি. চালালে ২৯৫ ডলার। আপনিও চাইলে ঘুরে আসতে পারেন এই স্বর্গ রাজ্যে।এখানে ঘুরতে আসলে আপনি আপনার কল্পনায় লালন করা স্বপ্নরাজ্য খোঁজে পাবেন।