হুইল চেয়ারে কলেজছাত্রী খাদিজা

khadija20161013094949

অনলাইন ডেস্ক ::
সিলেটের কলেজছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিসের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি জন্য ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বৃহস্পতিবার তাকে কিছুক্ষণের জন্য হুইল চেয়ারে ঘোরানো হয়েছে। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত খাদিজা ১৫ দিনেরও বেশি সময় হাসপাতালের বিছানায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে এখন কিছুটা সুস্থ বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

হাসপাতালের মেডিসিন অ্যান্ড ক্রিটিকাল কেয়ার বিভাগের পরামর্শক মির্জা নাজিম উদ্দিন বলেন, খাদিজার শারীরিক অবস্থার বেশ উন্নতি হয়েছে। আজ হাসপাতালের নার্সরা তাকে হুইল চেয়ারে করে ঘুরিয়েছে। শ্বাস-প্রশ্বাসের জন্য খাদিজার গলায় যে যন্ত্র ও নল স্থাপন করা হয়েছিল তা বুধবার খুলে নেওয়া হয়েছে। সে এখন স্বাভাবিকভাবেই নিঃশ্বাস নিতে পারছে।

গত ৩ অক্টোবর এমসি কলেজ কেন্দ্রে স্নাতক পরীক্ষা শেষে বের হয়ে হামলার শিকার হন সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী খাদিজা।

প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রত্যাখ্যাত হয়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায় খাদিজাকে। এতে তার খুলি ভেদ করে মস্তিষ্কও জখম হয়। কেটে যায় হাতের মাসল চেইন।

হামলার পর ঢাকায় এনে স্কয়ার হাসপাতালে ৪ অক্টোবর বিকালে খাদিজার অস্ত্রোপচার হয়। তখন থেকে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন খাদিজা। গত ১৩ অক্টোবর তার লাইফ সাপোর্ট খুলে দেওয়া হয়।

সিটিজিসান.কম/শিশির