নগরে আ,লীগ নেতা সোহেল হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | সিটিজিসান.কম

চট্টগ্রাম | ২৩ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার ১১:১৫ এএম |

চট্টগ্রাম: পাহাড়তলী বাজারে চাঁদা নেওয়ার অভিযোগ এনে ‘গণপিটুনিতে’ আওয়ামী লীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেল নিহতের ঘটনায় মামলার অন্যতম আসামি জাবেদ পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন।

সোমবার (২২ এপ্রিল) রাত ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ডবলমুরিং থানার ওসি সদীপ কুমার দাশ গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ছাড়া আরো তিন পুলিশ আহত হয়েছে বলে জানান মহানগর পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (ডবলমুরিং জোন) আশিকুর রহমান।

আহতরা হলেন- এসআই অর্ণব বড়ুয়া, এএসআই মিটু দাশ ও কনস্টেবল আল আমিন। সবাইকে পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আশিকুর রহমান বলেন, গতকাল রাত ১২টার দিকে নিহত মহিউদ্দিন সোহেল মামলার আসামি জাবেদকে গ্রেপ্তার করতে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য গুলি ছোঁড়ে আসামিপক্ষ। জীবন রক্ষার্থে পুলিশও গুলি ছুঁড়লে আহত হয় জাবেদ। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থল থেকে কয়েকটি অস্ত্র-গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৭ জানুয়ারি পাহাড়তলী বাজার এলাকায় ‘গণপিটুনিতে’ নিহত হন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেল। তখন স্থানীয়রা তাকে ‘চাঁদাবাজ’ হিসেবে দাবি করা হয়। পরের দিন বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসবক্লাব সংবাদ সম্মেলন করে মহিউদ্দিন সোহেলের পরিবার দাবি করেন মহিউদ্দিন সোহেলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। ৮ জানুয়ারি দিবাগত রাতে ডবলমুরিং থানায় মহিউদ্দিন সোহেল ‘নিহত হওয়ার’ ঘটনায় স্থানীয় কাউন্সিলর সাবের আহমেদকে প্রধান আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ছোট ভাই মো. শাকিরুল ইসলাম শিশির।

সিএস/সিএম/এসআইজে