চট্টগ্রামে সক্রিয় ভয়ংকর ছিনতাইকারী চক্র

সংগৃহিত ছবি।
সংগৃহিত ছবি।

চট্টগ্রাম ::
সময় ও যুগ পাল্টানোর সাথে সাথে ছিনতাইকারী চক্রদের কাজের ধরণও বদলিয়ে ফেলে। ছিনতাই করার সময় তারা বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করে থাকে। কখনো যাত্রী বেশে, কখনো রাতের আধারে একা পেয়ে সর্বস্ব কেড়ে নিচ্ছে ছিনতাইকারীরা। আর তাতে বাধা দিলে, ছুরিকাঘাতে বা শ্বাসরোধ করা হয় খুন।

চট্টগ্রাম নগরীতে একদিনের ব্যবধানে এমন দু’টি ঘটনা ঘটে, খুলশী থানা এলাকায়। যাতে ছয়জনকে আটকের পর জানা যায়, নগরীতে সক্রিয় আছে এমন আটটি ছিনতাইকারী চক্র।

গেলো ১৩ অক্টোবর নগরীর খুলশী আমবাগান এলাকায় উদ্ধার হয় গার্মেন্টস কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমের লাশ। তার একদিন পরেই একই এলাকায় মায়ের চিকিৎসা জন্য এসে খুন হতে হয় নাছির উদ্দিন নামে আরেক যুবককে।

ঘটনার তদন্তে বেরিয়ে আসে দু’টি ভিন্ন ছিনতাইকারী চক্রের হাতে খুন হন এ দুই নিরীহ যুবক। দুটি ঘটনায় আলাদাভাবে আটক হওয়া ছয়জনই স্বীকার করেছে খুনে জড়িত থাকার কথা।

নগরীতে হঠাৎ বেড়েছে ছিনতাইকারীদের তৎপরতা। বিশেষ করে অটোরিক্সায় যাত্রী বেশে উঠে অভিনব কায়দায় ছিনতাই করছে, দুর্বৃত্তরা।

ছিনতাইকাজে জড়িত এমন ৫৭ জনের একটি তালিকা আছে মহানগর পুলিশের কাছে। যাদের অনেকেই কারাগারে। আবার অনেকেই জামিনে বের হয়ে গড়ে তুলছে নতুন চক্র। নগরীতে এধরনের ছিনতাই কাজে সক্রিয় আছে ৮ থেকে দশটি চক্র।

পাশাপাশি তালিকা অনুসারে এসব অপরাধীদের নিয়মিত মনিটরিংয়ের কথা জানান, চট্টগ্রাম মহানগরের পুলিশের এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

সিটিজিসান.কম/শিশির