অবরোধের বলি এক পিইসি পরীক্ষার্থী

সুজা উদ্দিন তালুকদার :: ২০ নভেম্বর ২০১৯, ঘড়ির কাটায় সময় সকাল নয়টা ছুইঁ ছুইঁ। পিইসি পরীক্ষাথী ছোট্ট ছেলেকে নিয়ে সিএনজি অটোরিকশা যোগে পরীক্ষা কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে ছুটে চলেছেন মা। তবে সিএনজি অটোরিকশাটি গালি পার হয়ে মূল সড়কে উঠতেই চট্টগ্রাম মহানগরের পাহাড়তলী হাজী ক্যাম্পের সামনে দিয়ে ঘিরে ধরে সড়ক অবরোধ ডাকা পরিবহন চালকরা। সে সময় দু’হাত করজোর মিনতি-আর আত্মনাদ করেও ছাড়া পাননি তারা। ফলে পরীক্ষা কেন্দ্রে যাওয়া হয়নি এবারের এই পিইসি পরীক্ষার্থীর।

শুধু এই শিক্ষার্থীই নয়! নগরের বিভিন্ন সড়কে রিকশা চলাচল করতে দিচ্ছেনা অবরোধকারীরা।

নগরের সল্টগোলা ক্রসিং এলাকা আজাড় রহমান জানান, সকাল থেকেই সকল ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে চাকরিবীবিরা পায়ে হেটে অফিস-আদালতসহ কর্মস্থলের দিকে যেতে দেখাগেছে। তিনি আরও জানান, বুধবার পিইসি পরীক্ষার্থীদের বিজ্ঞান বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে অবরোধকারীদের বাধায় ও ছোটযান হিসেবে পরিচিত রিকশা, অটোরিকশা সিএনটি, টেম্পু চলাচল করতে না দেয়ায় শিক্ষার্থীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। অনেকই আজকের বিজ্ঞান পরীক্ষাং অংশ নিতে পারেনি। শিক্ষকদেরকে পায়ে হেটে স্কুলের দিকে যেতে দেখা গেছে। একইভাবে নগরের নতুনব্রিজ, বহদ্দারহাট, মুরাদপুর, জিইসি মোড় একেখান মোড়, আগ্রাবাদে যান চলাচলে বাধা সৃষ্টির খবর পাওয়া গেচে।

নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংশোধনের দাবিতে সারা দেশের ন্যায় বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামেও পণ্যবাহী গাড়ির পাশাপাশি নগরের সকল ধরনের যানবাহন চলাচলে বাধা সৃষ্টি করেছে।

নগরের মাদারবাড়ী, কদমতলী, নিমতলাসহ বিভিন্ন সড়কের আশপাশে, ট্রাক টার্মিনালে পণ্যবাহী গাড়ি বসিয়ে রাখা হয়েছে।

প্রাইম মুভার মালিক সমিতির কার্যকরী সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক বন্দর থেকে কনটেইনার পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইম মুভার বা ট্রেইলার চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলে দাবিকরেন। তবে সকাল থেকে বন্দর থেকে প্রাইম মুভার বা ট্রেইলার বের হতে দেখা মিলেনি।

আন্তঃজেলা মালামাল পরিবহন সংস্থা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সভাপতি মনির আহমদ বলেন, পণ্যবাহী কোনো যান চলাচল করছে না। নগরের যাত্রীবাহি যানবাহনের বিষয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।

পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল বন্ধের কারণে আমদানিকারক, তৈরি পোশাক শিল্প মালিক, রপ্তানিকারক, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টসহ সংশ্লিষ্টদের উদ্বেগ বাড়ছে।##