প্রকাশ: ২১ মার্চ ২০১৮, ১১:৩৮:২৪

পার্বত্য জেলায় সড়ক-নৌপথ অবরোধ চলছে

রাঙামাটি:
জেলার সদরের কুতুকছড়ি থেকে অপহৃত ইউপিডিএফ সমর্থিত দল হিল উইমেন্স ফেডারেশনের দুই নেত্রী মন্টি চাকমা ও দয়াসোনা চাকমাকে অপহরণের তিন দিন পরও উদ্ধার হয়নি। তাদের উদ্ধার এবং ইউপিডিএফ-গণতান্ত্রিকের শীর্ষ নেতা তপন জ্যোতি চাকমা ওরফে বর্মা ও তার সহযোগিদের গ্রেপ্তারের দাবিতে রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলায় সড়ক ও নৌ পথ অবরোধ চলছে।

ইউপিডিএফ সমর্থিত সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন এই কর্মসূচি পালন করছে।

অবরোধের কারণে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি জেলা সড়কে সকল ধরণের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। রাঙামাটি শহরের অভ্যন্তরে অটোরিকশা চলাচল করলেও অন্যান্য দূরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে ও রাঙামাটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন আছে।

রাঙামাটি কোতোয়ালি থানার ওসি সত্যজিৎ বড়ুয়া জানান, এখন পর্যন্ত কোথায় অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটেনি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

এদিকে অপহরণের ঘটনায় বুধবার সকালে রাঙামাটি কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা করেছেন দয়াসেনা চাকমার বাবা বৃষধন চাকমা। এতে নানিয়াচর উপজেলা চেয়ার‌ম্যান শক্তিমান চাকমাসহ ১৯ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

রাঙামাটি কোতোয়ালি থানার ওসি সত্যজিৎ বড়ুয়া মামলার বিষয়টিও নিশ্চিত করেছেন।

গত রবিবার রাঙামাটি সদর উপজেলার কুতুকছড়ি ইউনিয়নের আবাসিক এলাকার উপর পাড়া গ্রাম থেকে ইউপিডিএফ সমর্থিত দল হিল উইমেন্স ফেডারেশনের দুই নেত্রী মন্টি চাকমা ও দয়াসোনা চাকমাকে অস্ত্রের মুখে অপহরণের অভিযোগ উঠে।