প্রকাশ: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১২:০৯:৫৮

একেক ঋতুতে ভিন্ন রূপে বান্দরবান

বান্দরবান : বান্দরবান একেক ঋতুতে একেক রূপ ধারণ করে। বর্ষা ঋতুতে এক রকম, গ্রীষ্মকালে অন্য রকম। আবার শীত ও বসন্তে আরেক রকম। নীলাচল ও নীলগিরি তো এখন বিশ্বময় পরিচিত ভ্রমণ স্পট।

গতবারের মত এবারও এশিয়ার ট্যুরিজম ফেয়ারে অংশগ্রহণ করেছে বান্দরবান জেলা প্রশাসন। বান্দরবান জেলাকে প্রমোট করতে তারা মেলায় অংশ নিয়েছে। মেলার ৩০ নম্বর স্টলে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন তথ্য।

মেলায় কথা হয় বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরীর সঙ্গে। তিনি বলেন, আমরা বান্দরবান জেলার সৌন্দর্য্য জানাতে এসেছি। ভ্রমণকারীরা কোথায় কোথায় ঘুরতে পারেন সে তথ্য দিচ্ছি। কোন হোটেলে থাকা যাবে, কোথাকার খাবার ভালো-এসব তথ্য আমাদের স্টলে পাবেন দর্শনার্থীরা।

বান্দরবানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে ভ্রমণকারীরা যেন সংকোচবোধ না করে তার আহ্বান জানিয়ে দিদার আলম বলেন, বান্দরবান জেলার পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে প্রয়োজনে নিরাপত্তা দেয়া হয়।

মেলায বান্দরবান জেলার স্টল থেকে জানানো হয়, ঢাকা থেকে বিভিন্ন বাস ছেড়ে যায় বান্দরবানের ‍উদ্দেশে। ফকিরাপুল থেকে ছাড়ে শ্যামলী পরিবহন সকাল সাড়ে ১০টায় ও রাত সাড়ে ১১টায়। ভাড়া ৬২০ টাকা। কলাবাগান থেকে সৌদিয়া কোচ সার্ভিস ছাড়ে রাত সাড়ে আটটায়। হানিফ পরিবহন গাবতলী থেকে চেড়ে যায় সকাল সাড়ে ৯ টায় ও রাত ৯ টা ১৫ তে, এস আলম পরিবহন কমলাপুর ও গাবতলী থেকে ছাড়ে সকাল সাড়ে নয়টায় ও রাত ৮ টায় এছাড়াও ঢাকা থেকে বিভিন্ন বাস বান্দরবানের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

কোথায় থাকবেন: বান্দরবান সদরে পর্যটন মোটেল, হলিডে ইন রিসোর্ট, বন বিলাস, গিছিয়া রিসোর্ট, সাঙ্গু রিসোর্ট। বান্দরবান শহরে রয়েছে হোটেল নীলগিরি, হোটেল হিলবার্ড, হোটেল পূর্বাণী, হিল সাইড।

বান্দরবান রুমা উপজেলায় আছে হোটেল হিলটন, লারাম কটেজ, লালা কটেজ, জুমি রিসোর্ট, মং গেস্ট হাউজ। রোয়াংছড়ি উপজেলায় আছে রামজন আবাসিক হোটেল, রাধামন আবাসিক হোটেলে।

প্রয়োজনীয় ফোন নম্বর:
জেলা প্রশাসক, বান্দরবান- ০৩৬১-৬২৫১০, ০৩৬১-৫২৫০২, মোবাইল-০১৫৫৬৭৬৬৬৬।

পুলিশ সুপার বান্দরবান: আফিস-০৩৬১-৬২৫০৫, বাসা-০৩৬১-৬২৩০৯, মোবাইল-০১৭১৩৩৭৩৬৭৬, এনজিসি জেলা প্রশাসকের কার্যালয় বান্দরবান পার্বত্য জেলা- ০৩৬১-৬২৫০৬, মোবাইল- ০১৭১৪২৩০৩৫৪।