প্রকাশ: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৯:০২:১৩

ইমন খুন: অমিতের সহযোগী শিশির ২দিনের রিমান্ডে

ইমাম হোসেন মজুমদার শিশির

ইমাম হোসেন মজুমদার শিশির

চট্টগ্রাম : নগরীর কোতয়ালি থানাধীন নন্দনকাননে অমিতের বাসায় তার বন্ধু ইমরানুল করিম ইমনকে (২৫)কে খুনের মামলায় সন্ত্রাসী অমিত মুহুরীর সহযোগী ইমাম হোসেন মজুমদার শিশিরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দিনের হেফাজতে নেয়ার
অনুমতি পেয়েছে পুলিশ।

বুধবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম মাসুদ পারভেজ এই আদেশ দিয়েছেন।

নগর পুলিশের সহকারি কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবুদ্দিন আহমেদ জানান, শিশিরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছিল। আদালত দুই দিন মঞ্জুর করেছেন। এর আগে মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) অমিতকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

গত ৯ আগস্ট নগরীর নন্দনকাননে অমিতের বাসায় তার বন্ধু ইমরানুল করিম ইমনকে (২৫) লোমমহর্ষকভাবে খুন করা হয়। খুনের পর ড্রামের ভেতরে মরদেহ রেখে এসিড ও চুন ঢেলে সেটা গলিয়ে হাড়গোড় নদীতে ফেলে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছিল।

কিন্তু একদিন পরও মরদেহ অবিকৃত থাকায় সেটা খণ্ড খণ্ড করে কেটে ফেলার চেষ্টা করা হয়। মরদেহ শক্ত হয়ে যাওয়ায় অমিত ও তার সহযোগীদের সেই পরিকল্পনাও ব্যর্থ হয়। এরপর বালু ও সিমেন্ট দিয়ে ড্রামের ঢাকনা ঢালাই করে মরদেহ দিঘিতে ফেলে দেওয়া হয়।

গত ১৩ আগস্ট নগরীর কোতোয়ালী থানার এনায়েতবাজারে রাণীর দীঘি থেকে ড্রামভর্তি একটি প্রায় গলিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ১৭ দিন অনুসন্ধানের পর মরদেহের পরিচয় এবং লোমহর্ষক এই হত্যাকাণ্ডের বিবরণ পায় পুলিশ। এরপর ৩০ আগস্ট রাতে গ্রেফতার করা হয় অমিতের বন্ধু শিশির (২৭) এবং তার বাসার নিরাপত্তারক্ষী শফিকুর রহমান শফিকে (৪৬)। ১ সেপ্টেম্বর শিশির আদালতে জবানবন্দি দেন। হত্যাকাণ্ডের পর পালিয়ে যাওয়া অমিত মুহুরীকে ২ সেপ্টেম্বর রাতে কুমিল্লা সদর উপজেলায় আদর নামে একটি মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্র থেকে আটক করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ।