প্রকাশ: ৬ জুলাই ২০১৭, ১৪:৫১:৫৭

ফের জন্মদিনের কথা বলে ধর্ষণ

ঢাকা : জন্মদিনের কথা বলে বনানীতে আবার এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বুধবার এই অভিযোগে বাহাউদ্দিন ইভান নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এক তরুণী।

কিছুদিন আগে বনানীর একটি আবাসিক হোটেলে জন্মদিনের দাওয়াতের কথা বলে দুই তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়। আলোচিত ওই ঘটনায় আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলেসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সে ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবার বনানীতে জন্মদিনের নামে ধর্ষণের ঘটনা ঘটলো।

বনানী থানার পুলিশ জানিয়েছে, ব্যবসায়ী বাহাউদ্দিন সপরিবারে বনানীর ২ নম্বর রোডে ন্যাম ভিলেজের একটি অ্যাপার্টমেন্টে থাকেন। মঙ্গলবার রাতে জন্মদিনের অনুষ্ঠানের কথা বলে পূর্বপরিচিত এক তরুণীতে তার বাসায় ডেকে আনেন। রাত দেড়টার দিকে তাকে ধর্ষণ করেন এবং তিনটার দিকে বাসা থেকে বের করে দেন। এ সময় ওই বাসায় আর কেউ ছিল না।

বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল মতিন এ প্রসঙ্গে জানান, এ ঘটনার পর বাসা থেকে বাহাউদ্দিন পালিয়ে গেছেন। আমরা তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছি।

পুলিশ বলছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই তরুণীর সঙ্গে বাহাউদ্দিনের পরিচয় হয়। এরপর বিভিন্ন সময়ে দেখাসাক্ষাৎ হয়েছে।

পুলিশ পরিদর্শক মতিন বলছেন, জন্মদিনের কথা বলে ওই তরুণীকে বাসায় ডেকে আনেন ইভান। কিন্তু তরুণী সন্ধ্যার পর বাসায় এসে দেখে, সেখানে আর কেউ নেই। এরপর তাকে গভীর রাত পর্যন্ত আটকে রেখে ধর্ষণ করে এবং রাত ৩টার দিকে বাসা থেকে বের করে দেয়। থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরই আমরা মামলা নিয়ে গ্রেপ্তার অভিযান শুরু করেছি।

বাহাউদ্দিন ইভান বিবাহিত ও তার দুই সন্তান রয়েছে বলে পুলিশ জানতে পেরেছে। তিনি বাবার ব্যবসা দেখাশোনার পাশাপাশি নিজের ব্যবসাও রয়েছে।

মামলার পর ভিকটিম তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টট ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়। এরপর থেকে তাকে তেজগাঁওয়ের উইমেন ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছে।

কিছুদিন আগে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে জন্মদিনের কথা বলে আটকে রেখে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। ব্যাপক আলোচনার মধ্যে আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।