প্রকাশ: ৮ জুন ২০১৭, ১৪:০২:৩৪

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখছে টেক মেকারস সিস্টেমস

মো.আরিফুল ইসলাম

মো.আরিফুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম :: দারিদ্র্যপীড়িত বাংলাদেশের অগ্রগতি সাধিত হচ্ছে। বর্তমান সরকারের মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তর হতে চলেছে লাল-সবুজের এ দেশটি। অনাহার, অর্ধাহার, দারিদ্র্য, বেকারত্ব, অনুন্নত যোগাযোগ খাতসহ অভাব আর অপ্রতুলতার মতো পীড়াদায়ক শব্দগুলো হারিয়ে যেতে বসেছে ৫৫ হাজার বর্গমাইলের মানচিত্র থেকে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে শিগগিরই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তর হবে সন্দেহের অবকাশ নেই। নেতৃত্বের এই বলিষ্ঠতা ও দৃঢ়তা আমাদের বড় প্রাপ্তি। এ ক্ষেত্রে বড় সহায়ক ছিল তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে উদ্ভাবনী ভাবনা ও সময়োপযোগী যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার।

প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের সাথে তাল মিলিয়ে এবার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখছেন তরুণ উদ্দ্যেক্তা টেক মেকারস সিস্টেমস এর চেয়ারম্যান মো.আরিফুল ইসলাম।

তিনি বলেন বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকার গুরুত্বপূর্ণ সব ভূমিকা রেখে চলেছেন। সহজ শর্ত এবং আইন বাংলাদেশে নতুন নতুন প্রযুক্তি এবং টেলিকমিউনিকেশন প্রতিষ্ঠান এবং সেবা তৈরি হতে সুযোগ পাচ্ছে। প্রযুক্তি পণ্যের উপর কর মুক্ত করায় এবং কিছু কিছু পণ্যে নামমাত্র কর রাখায় নতুন নতুন পণ্য বাংলাদেশের মানুষের হাতের নাগালের মধ্যে চলে আসছে উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে।

সভা-সেমিনার এবং মিডিয়ার মাধ্যমে প্রচার করে প্রত্যেকটি নাগরিককে টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তি আয়তায় নিয়ে আসার বিভিন্ন পরিকল্পনা সরকার নিয়ে যাচ্ছে তার সুদূর প্রসারী উদ্যোগ “ডিজিটাল বাংলাদেশ” গড়ে তোলার লক্ষ্যে। টুয়েন্টি-টুয়েন্টি “Twenty 20” লক্ষ্য মাত্রার মাধ্যমে ২০২০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে ডিজিটাল করার লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার এই মহান প্রয়াস সরকার না নিলে বাংলাদেশ কয়েক দশক পিছিয়ে থাকতো বিশ্ব তথ্য প্রযুক্তিতে।

আসুন তাহলে আমরা সবাই উদ্ভাবনে শরীক হইঃ টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তি একটি দেশের উন্নয়নের এক মাত্র হাতিয়ার। উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশকে নতুন সব উদ্ভাবনের এক মাত্র চালিকা শক্তি হবে টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তি খাত।

দেশ যতো বেশি তথ্য প্রযুক্তির আয়তায় আসবে ততো বেশি এগিয়ে যাবে নতুন উদ্ভাবনের মধ্য দিয়ে। নতুন নতুন সৃষ্টিশীল আবিষ্কার দেশকে নিয়ে যাবে অন্য উচ্চতায়। আর এতো সব বাংলাদেশে সম্ভব এক মাত্র টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তির আরও বেশি উন্নয়ন এবং সুযোগের মাধ্যমে।

যেদিন প্রত্যেকটি মানুষ প্রযুক্তির ছায়া তলে চলে আসবে সেদিন এই দেশ অন্য উন্নত দেশের সাথে সব দিকে প্রতিযোগিতা করবে।

তিনি আরো বলেছেন, ২০২০সালের মধ্যে বাংলাদেশের ২ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থান করায় তার প্রধান লক্ষ।

আসুন আমরা সবাই একসাথে দেশের প্রযুক্তিকে এগিয়ে নিই।এবং ডিজিটাল বাংলাদেশে বাস্থবায়ন করি।

সিটিজিসান.কম/শিশির