চকোলেটে ঘুমের বড়ি খাইয়ে শিশুকে ধর্ষণ!

চট্টগ্রাম :
মহানগরের খুলশী থানার লালখান বাজারের মতিঝর্ণা এলাকার ১০নং বেলালের কলোনীতে চেতনানাশক ওষুধ মিশানো চকোলেট খাইয়ে ৩য় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে হারুন অর রশিদ (৪৫) নামের এক লম্পটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় জনতা ওই লম্পটকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে। রোববার দুপুর দুইটার দিকে ঘটেছে।

বর্তমানে ওই শিশু শিক্ষার্থী চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ৩৩ নম্বর মহিলা ওয়ার্ডের অপারেশন থিয়াটারে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) শীলব্রত বড়ুয়া বলেন, শিশুটিকে ডেকে আদরের ছলে চকোলেট দেয় হারুন। ওই চকোলেটে আগ থেকেই চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে রাখে সে। চকোলেট খেয়ে জ্ঞান হারানোর পর তাকে ধর্ষণ করে। দুপুর আড়াইটার দিকে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. ফয়সাল কবির রোজার বলেন, শিশুটির অবস্থা আশংকাজনক। প্রচুর রক্ত ক্ষরণ হচ্ছে তার। বর্তমানে ৩৩ নং মহিলা ওয়ার্ডের অপারেশন থিয়াটরে তার চিকিৎসা চলছে।