ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি, দুই পুলিশসহ আটক ৩

সিটিজিসান, অনলাইন ডেস্ক :
নাটোরে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে পুলিশ কনস্টেবল (সিপাহি) পদে চাকরি নেওয়ার অপরাধে দুই কনস্টেবল ও এক সহযোগিসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, বড়াইগ্রাম উপজেলার বাগডোব গ্রামের সাইফুল জোয়ার্দারের ছেলে কনস্টেবল ইমরান হোসেন (২০), নাটোর সদর উপজেলার লালমণিপুর গ্রামের ফরজ মণ্ডলের ছেলে কনস্টেবল রবিন হোসেন (১৯) ও তাদের সহযোগী নাটোর পুলিশ লাইনসের বাবুর্চি নাটোর সদর উপজেলার বড়হরিশপুর এলাকার আব্দুল খালেক মিয়ার ছেলে সোহাগ (৩১)।

সোমবার রাতে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় ছয়জনকে অভিযুক্ত করে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত অপর তিনজনকে আটক করতে পুলিশের অভিযান চলছে।

মঙ্গলবার নাটোর থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আকিবুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি নাটোরে পুলিশ কনস্টেবল পদে লোক নিয়োগ দেয়া হয়। এ নিয়োগের সময় রবিন, ইমরান ও নাটোর পুলিশ লাইনের বাবুর্চি সোহাগসহ অপর তিন ব্যক্তির সহযোগিতায় ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ ব্যবহার করে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় চাকরি নেন। পরে পুলিশি তদন্তের সময় তাদের দেয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদটি জাল বলে নিশ্চিত হওয়া যায়।

এ ঘটনায় ৬ জনকে অভিযুক্ত করে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হলে তাদের গ্রেফতার করা হয়। অন্য তিনজনকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তদন্তের স্বার্থে ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের নাম প্রকাশ করতে অপারগতা প্রকাশ করেছে পুলিশ।