প্রকাশ: ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১০:১৬:৪৯

মিয়ানমার সেনাদের যৌন সহিংসতার শিকার রোহিঙ্গারা : গুতেরেস

অনলাইন ডেস্ক, সিটিজিসান :
মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গাদের অনেকেই সেনাবাহিনীর যৌন সহিংসতার শিকার হয়েছে। জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরেসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গুতেরেসের প্রতিবেদনটি সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে উত্থাপন ও আলোচনা হবে। এতে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক চিকিৎসক দলের সদস্য ও বাংলাদেশের কর্মীরা যে তথ্য নথিভুক্ত করেছেন, তাতে বলা হয়েছে, পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা ‘নির্মম যৌন সহিংসতার কারণে শারীরিক ও মানসিক ভীতি বয়ে বেড়াচ্ছেন।’

গুতেরেস জানিয়েছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এই নির্যাতন চালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ‘২০১৬ সালের অক্টোবর ও ২০১৭ সালের আগস্টে সেনাবাহিনীর নির্মূল অভিযানের সময় স্থানীয় মিলিশিয়াদের সঙ্গে মিলিতভাবে এই কাজ করা হয়েছে।’

তিনি বলেছেন, ব্যাপক হুমকি ও যৌন সহিংসতা সম্পূর্ণভাবে রোহিঙ্গাদেরকে অবমাননা, তাদের মধ্যে ভীতি সঞ্চার ও সম্মিলিত শাস্তি নীতির অংশ, যা তাদের মাতৃভূমি থেকে পালিয়ে যাওয়া ও সেখানে ফিরে আসা ঠেকানোর জন্য অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব বলেন, ‘রাখাইন রাজ্যের উত্তরাংশে সাফাই অভিযানের ছদ্মাবরণে জাতিগত নিধন করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘নারীর ওপর সহিংসতা চালানো হয়েছে, এদের মধ্যে গর্ভবতী নারীও রয়েছে যাদেরকে জাতিগত পরিচয় রক্ষাকারী ও প্রচারকারী হিসেবে দেখা হয়, যারা গোষ্ঠীর ভবিষ্যত প্রতিনিধি সেই কিশোর-কিশোরীর ওপরও নির্যাতন চালানো হয়েছে।’

‘অধিক সন্তান জন্মদানে সক্ষম রোহিঙ্গারা সংখ্যাগুরু সম্প্রদায়ের জন্য হুমকি বলে যে প্ররোচনামূলক বিস্তৃত অভিযোগ রয়েছে তার সঙ্গে এর সম্পর্ক থাকতে পারে’ বলে গুতেরেসের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।